আসছে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা!

আসছে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা!

আরো একবার বিদ্যুতের মূল্য পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে বাড়তে যাচ্ছে। এ বিষয়ে সাংবাদিক সম্মেলনের ডেকেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। পাইকারি পর্যায়ে এর আগে বিদ্যুতের মূল্য ১০ থেকে ১৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব রাখে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো হয়। এই পাইকারি মূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে খুচরা পর্যায়ে মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় কারওয়ানবাজারে কমিশন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি বা এই সংক্রান্ত ঘোষণা আসতে পারে বলে জানিয়েছে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) এক কর্মকর্তা।

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির এই সিদ্ধান্তে মন্ত্রণালয় অটল থাকলে দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ মূল্যবৃদ্ধি হবে এবার। আগামী মার্চ থেকেই বর্ধিত হারে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে গ্রাহককে।

বিদ্যুৎ খাতের সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন বোর্ড (পিডিবি)সহ ছয় সংস্থা গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের মূল্য বাড়ানোর প্রস্তাব প্রদান করেছে। সঞ্চালন মাশুল বাড়ানোর দাবি করে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানিও (পিজিসিবি)।

২০০৯ সালে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর এখন পর্যন্ত পাইকারি পর্যায়ে ৬ বার এবং খুচরা গ্রাহক পর্যায়ে ৮ বার বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৭ সালের নভেম্বর নিত্যব্যবহৃত পণ্যটির দাম বাড়ানো হয়।

গত বছর গ্যাসের মূল্য বাড়ানোর দুই মাসের মাথায় বিদ্যুতের দাম আরেক দফা বাড়াতে বিইআরসিতে প্রস্তাব পাঠায় বিতরণ কোম্পানিগুলো। এসব প্রস্তাবের ওপর গত ২৮ নভেম্বর শুরু হয় গণশুনানি। নিয়ম অনুসারে গণশুনানির ৯০ দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাতে হয় বিইআরসিকে। সেই হিসেবে এক সপ্তাহে আগে ডাকা হয়েছে এই সংবাদ সম্মেলন।

ইত্তেফাক/আরএ

LEAVE A REPLY