‘এসবের কারণ, সালমানের সম্পত্তির ভাগ দিতে চায় না তার পরিবার’

সালমান শাহর মৃত্যুরহস্য নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দেওয়া প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে তার পরিবার। পিবিআইর সংবাদ সম্মেলনের পরপরই ম্যানচেস্টারে অবস্থান করা নীলা চৌধুরী তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এই প্রতিবেদন মনগড়া। এটা আমি মানি না, মানবো না। প্রতিবেদনে যে সাক্ষীর কথা বলা হয়েছে সেগুলো সাজানো। বিপ্লব যে বলছে ইমনের (সালমান শাহ) বন্ধু… কী নাম, সৌমিক? সে তো ইমনের বন্ধু ছিল না, সৌমিক ছিল সামিরার পুরোনো প্রেমিক।

নীলা চৌধুরীর এই প্রতিক্রিয়ার একদিন পরই সামিরা গণমাধ্যমকে জানালেন, পারিবারিক কলহের জেরে সালমান শাহ আত্মহত্যা করেন। তাকে হত্যার অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। আত্মহত্যাকে খুন বলে চালানোর চেষ্টা করেছে ইমনের পরিবার। তাই সেই দায় আমার ওপর চাপানোর চেষ্টা ছিল। এসবের কারণ, ইমনের সম্পদের ওপর যাতে আমি কোনো দাবি করতে না পারি, বলেও তিনি জানান।উল্লেখ্য, চিত্রনায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যুর কারণ আত্মহত্যা উল্লেখ করে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মঙ্গলবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ৬০০ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন পিবিআইয়ের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম। এর আগে পিবিআই সংবাদ সম্মেলনে জানায়, শাবনূরের সঙ্গে প্রেম ছিল সালমানের। শাবনূরকে বিয়ে করে দুই স্ত্রী নিয়ে থাকতে চেয়েছিলেন সালমান। তবে তার স্ত্রী সামিরা হক তাতে রাজি হননি। শাবনূর বিষয়টি অস্বীকার করে বলেছেন, সালমানের সঙ্গে তার ভাইবোনের সম্পর্ক ছিল। প্রেম ছিল না।

বিডি-প্রতিদিন

LEAVE A REPLY