শূন্য পদ ৩ লাখ ১৩ হাজার ৮৪৮ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন সংসদে জানিয়েছেন, বর্তমানে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে ৩ লাখ ১৩ হাজার ৮৪৮টি পদ শূন্য রয়েছে। ২০১৯ সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে ৩৭তম বিসিএস এর মাধ্যমে ১ হাজার ২৪৮ জন কর্মকর্তাকে বিভিন্ন ক্যাডারে এবং ৩৯তম বিসিএস এর মাধ্যমে ৪ হাজার ৬১১ জন কর্মকর্তাকে স্বাস্থ্য ক্যাডারে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সর্বমোট ৫ হাজার ৮৫৯ জন কর্মকর্তা নিয়োগ পেয়েছেন। এছাড়া ৪০তম বিসিএস এর মাধ্যমে ১৯১৯ জনকে বিভিন্ন পদে নিয়োগের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ সংসদের ৬ষ্ঠ অধিবেশনে রবিবার টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে মুজিবুল হকের (কিশোরগঞ্জ-৩) লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথ্য জানান।চাকরিজীবীর সংখা ১২ লাখ ১৭ হাজার ৬২ : মোরশেদ আলম (নোয়াখালী-২) লিখিত প্রশ্নের জবাবে ফরহাদ হোসেন জানান, দেশে বর্তমানে চাকরিজীবীর সংখ্যা ১২ লাখ ১৭ হাজার ৬২ জন।

জনপ্রশাসনে কর্মকর্তার সংখ্যা ৬ হাজার ৫৫ : মোশারফ হোসেনের অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, দেশে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়াধীন সিনিয়র সচিব, অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিব, উপসচিব ও অন্যান্য প্রথম শ্রেনীর পদমর্যাদাসম্পন্ন কর্মকর্তার সংখ্যা মোট ৬ হাজার ৫৫ জন। যার মধ্যে সিনিয়র সচিব ১০জন, সচিব ৬৭ জন, অতিরিক্ত সচিব ৫৪৭ জন,যুগ্ম সচিব ৬৫৮ জন, উপসচিব ১ হাজার ৬৯৩জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ১ হাজার ৫২২ জন এবং সহকারী সচিবের সংখ্যা ১ হাজার ৫৫৮ জন। 

প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তায় ঢাকা শীর্ষে, বান্দরবান তলানিতে : একই প্রশ্নের উত্তরে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানান, প্রথম শ্রেণি পদমর্যাদাসম্পন্ন কর্মকর্তার দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে ঢাকা জেলা, এরপরই কুমিল্লা জেলা। আর সব জেলার নিচে বান্দরবান জেলা। এই জেলায় সিনিয়র সচিব থেকে উপসচিব পর্যায়ে কোন কর্মকর্তা নেই। সংসদে জেলাওয়ারি প্রথম শ্রণির কর্মকর্তাদের তালিকা তুলে ধরেন তিনি। সংসদে দেওয়া তথ্যানুযায়ী, ঢাকা জেলায় প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা সিনিয়র সচিব ১ জন, সচিব ৩ জন, অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ে ২০ জন, যুগ্ম সচিব পর্যায়ে ২৮ জন, উপসচিব পর্যায়ে ১০২ জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ৯৬ জন সহকারী সচিব ১০৫ জন। মোট ৩৫৫ জন।
দ্বিতীয় অবস্থানে কুমিল্লা জেলা। এই জেলায় সিনিয়র সচিব ১ জন, সচিব ১ জন, অতিরিক্ত সচিব ৩০ জন, যুগ্মসচিব ২৭ জন, উপসচিব ৮৫ জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ৬৮ জন, সহকারী সচিব ৮০ জন। মোট ২৯২ জন।
তৃতীয় স্থানে চট্টগ্রাম জেলা। এই জেলায় সিনিয়র সচিব ১ জন, সচিব ৩ জন, অতিরিক্ত সচিব ২৯ জন, যুগ্ম সচিব ২৭ জন, উপসচিব ৫৮ জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ৬০ জন, সহকারী সচিব ৭২ জন মোট ২৫০ জন।
চতুর্থ স্থানে ময়মনসিংহ জেলা। এই জেলায় সচিব ২ জন, অতিরিক্ত সচিব ১৮ জন, যুগ্মসচিব ১৯ জন, উপসচিব ৫৩ জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ৫৯ জন, সহকারী সচিব ৬৩ জন মোট ২১৪ জন, ৫ম অবস্থানে বরিশাল জেলা। জেলাটিতে সচিব ৫ জন, অতিরিক্ত সচিব ১৭ জন, যুগ্মসচিব ২৫ জন, উপসচিব ৫২ জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ৩৯ জন, সহকারী সচিব ৫১ জন, মোট ১৮৯ জন।
পার্বত্য জেলা বান্দরবানে সিনিয়র সচিব থেকে উপসচিব পর্যায়ে কোন কর্মকর্তা নেই। সিনিয়র সহকারী সচিব ৬ জন এবং সহকারী সচিব ২ জন। সংখ্যার কমের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে মেহেরপুর জেলা। মেহেরপুরের প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা মাত্র ১৮ জন। এই জেলায় সচিব ১ জন, অতিরিক্ত সচিব ২ জন, যুগ্মসচিব ১ জন, উপসচিব ৬ জন, সিনিয়র সহকারী সচিব ৩ জন, সহকারী সচিব ৫ জন। মোট ১৮ জন।

LEAVE A REPLY