সরকার চাইলে দ্রুত বিচার, না চাইলে চার্জশিট পেছায় : রুমিন ফারহানা

সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির মহিলা এমপি ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, সরকার চাইলে দেশে বিচার দ্রুত হয়। আর না চাইলে ৭০ বার মামলার চার্জশিট পেছায়। বর্তমান সরকার জনগণের ম্যান্ডেটহীন সরকার। তাই নিজেদের টিকিয়ে রাখার জন্য দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন হচ্ছে বলে জোর প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে। 

একাদশ সংসদের ষষ্ঠ ও বছরের প্রথম অধিবেশনের আজকের বৈঠকে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। তবে এসময় সংসদে সভাপতিত্বকারী ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া ব্যারিস্টার রুমনি ফারহানার বক্তব্য থেকে ‘অবৈধ সরকার’ ও ‘ ‘জাজমেন্টে সরকারের হস্তক্ষেপ’ বিষয়ক শব্দ দুটি এক্সপাঞ্জ করার ঘোষণা দেন। 

অপরদিকে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকার দলীয় সংসদ সদস্যরা বলেছেন, শুধুমাত্র অর্থের লোভে খালেদা জিয়া ও তাঁর পুত্র দেশের যে সর্বনাশ করে গেছেন, তা কোনদিন পূরণ হবে না। এখনও দেশের কিছু কুলাঙ্গার বঙ্গবন্ধু ও মুবিজবর্ষ নিয়ে কটাক্ষ করার দুঃসাহস দেখায়। জাতি এদের কোনদিন ক্ষমা করবে না। অন্যদিকে বিএনপির সংসদ সদস্য গত ৩০ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচনের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। 

আলোচনায় অংশ নেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আফম রুহুল হক, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সরকারি দলের ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক, বেনজীর আহমেদ, বেগম কানিজ ফাতেমা আহমেদ, ও বিরোধী দল জাতীয় পার্টির ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী। 
 
ব্যারিস্টার রুমিন সংসদে আরও বলেন, দেশের অর্থনীতিবিদরা দেশের অর্থনীতিতে মন্দাভাব নিয়ে পূর্বাভাস দিয়েছেন কিন্তু রাষ্ট্রপতির বক্তব্যে সেটা নেই। এ বছরে গত বছরের তুলনায় রপ্তানি আয় কমেছে। এর মূল কারণ পোশাক খাতের রপ্তানি আয় হ্রাস পাওয়া। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে কর্মসংস্থানে। বাংলাদেশ দেশের লেনদেনের ভারসাম্য গত বছরের তুলনায় কমেছে এর ফলে দেশের রিজাভ ক্রমান্বয়ে কমেছে।

LEAVE A REPLY