একজন ধর্ষকের শিকার ১৩৬ নারী, অবশেষে যাবজ্জীবন

ছবি: সংগৃহীত।

১৩৬ নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত রেইনহার্ড সিনাগাকে নামের এক ইন্দোনেশিয়ান নাগরিককে যাবজ্জীবন শাস্তি দিয়েছেন বৃটেনের একটি আদালত। সোমবার যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টারের এক আদালত এই শাস্তি দেন।

যুক্তরাজ্যের লিডস বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আসা অভিযুক্ত ৩৬ বছর বয়সী ইন্দোনেশিয়ান ছাত্র রেইনহার্ড সিনাগা এরই মধ্যে যুক্তরাজ্যের সবচেয়ে বেশি ধর্ষণ করার তকমাও পেয়ে গেছেন । এই রায়ের বিষয়ে আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়, রেইনহার্ড সিনাগা যুক্তরাজ্যের আইন ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত।

জানা গেছে, নাইটক্লাব এবং পানশালায় ফাঁদ তৈরি করতো রেইনহার্ড সিনাগা। ট্যাক্সি ডাকার নাম করে কিংবা মদ পান করানোর কথা বলে নিজ বাসায় নিয়ে গিয়ে নির্যাতন চালাতো সে। সিনাগার হাতে নির্যাতিত হওয়া এক কিশোরী বলেন, সে একজন দুষ্ট শিকারী। আমার পুরো জীবনটাই সে পাল্টে দিয়েছে।

বৃটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩৬ বছর বয়সী ইন্দোনেশিয়ান নাগরিক রেইনহার্ড সিনাগা গত আড়াই বছরে প্রায় ১৯০ জনকে ফাঁদে ফেলেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর মধ্যে তার বিরুদ্ধে ১৫৯টি যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এসেছে। যার মধ্যে ১৩৬ টি ধর্ষণের ঘটনা রয়েছে। এ ছাড়া রেইনহার্ড সিনাগার হাতে নির্যাতিত হওয়া বাকিদের এখনও খোঁজা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ ।

এদিকে ২০১৮ সালে আরো দুটি অভিযোগে অভিযুক্ত হওয়ার কারণে ইতিমধ্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোগ করছেন রেইনহার্ড সিনাগা । ওই সময় তাকে সর্বনিম্ন ২০ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে বলে আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়। তবে এবার রেইনহার্ড সিনাগার বিরুদ্ধে শাস্তির মাত্রা আরো বেড়েছে । এবার সর্বনিম্ন ৩০ বছর তাকে কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে বলে জানিয়েছেন আদালত।

ইত্তেফাক/এআর

LEAVE A REPLY