কাশ্মীর সীমান্তে তুষারঝড়ে সেনাসহ নিহত ৬

ভারতীয় কাশ্মীরের সিয়াচেন সীমান্ত এলকায় তুষারধসে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে চারজন ভারতীয় সেনা সদস্য এবং অন্য দু’জন তাদের সঙ্গে থাকা সহায়তাকারী। সোমবার দুপুরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর আট জওয়ান সিয়াচেনে টহলদারির কাজে ১৯ হাজার ফুট উপরের হিমবাহে গিয়েছিল ভারতীয় সেনার একটি দল। সে সময় তুষারধস নামে।

সঙ্গে সঙ্গে জরুরী সহায়তার জন্য সেনাক্যাম্পে খবর দেয়া হয়। দুর্ঘটনার পরই উদ্ধারকাজ শুরু করে সেনাবাহিনী। সেনাদের উদ্ধারে হেলিকপ্টার মোতায়েন করা হয়। কিন্তু অত্যধিক উচ্চতা ও অক্সিজেন না থাকায় ততক্ষণে চার জওয়ান ও দুই কুলির মৃত্যু হয়েছে।

সেনাবাহিনী জানিয়েছে, বরফের নিচে নিহতদের মরদেহ চাপা পড়েছিল। বৈরী আবহাওয়ার কারণে মরদেহ উদ্ধারে বেশ বেগ পেতে হয়েছে উদ্ধারকারী দলকে। এক সেনা কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সিয়াচেন হিমবাহের ১৯ হাজার ফুট উচ্চতায় টহলহারি চালাতে গিয়েছিলেন ছয় জওয়ান। তাদের সঙ্গে ছিলেন দুই মালবাহক। কিন্তু আচমকা তাদের দিকে ধেয়ে আসে তুষারধস। নিজেদের রক্ষা করার সময় পাননি তারা। তুষারধসের সঙ্গেই ভেসে যান তারা।
উল্লেখ্য, এ বছরেরে ফেব্রুয়ারী মাসেও ১০ জন সেনা সদস্য তুষারঝড়ের কবলে পড়ে অবশ্য পরে তৎক্ষনাত তাদেরকে উদ্ধার করা হয়।

হিমালয়ের কারাকোরাম রেঞ্জে ২০ হাজার ফুট উঁচুতে রয়েছে সিয়াচেন হিমবাহ। ওই অঞ্চলকেই বিশ্বের সর্বোচ্চ যুদ্ধক্ষেত্র বলে ধরা হয়। তুষারধস বা পাথরধস এখানকার নিত্যনৈমিত্যিক ঘটনা। শীতকালে তাপমাত্রা এখানে মাইনাস ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নেমে যায়।

LEAVE A REPLY