ইতালির ভাসমান শহর ভেনিস প্লাবিত

ইতালির ভাসমান শহর ভেনিস। সাগরের বুকে গড়ে ওঠা পৃথিবীর একমাত্র ভাসমান শহর ভেনিস। সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে মাত্র ৮৮ সেন্টিমিটার উচ্চতায় শহরের প্রধান কেন্দ্র সান-মার্কো স্কয়ার। সাড়ে তিন বর্গ কিলোমিটার মূল ভেনিস শহরে প্রতি বছর ভিড় করে ৩০ হতে ৩৫ মিলিয়ন পর্যটক। এমন ছোট্ট শহরে এত বেশি ভ্রমণকারী দুনিয়ার আর কোথাও নেই। 

ভেনিসের আশপাশে রয়েছে আরও ৫১টির মতো ছোট ও মাঝারি মাপের দ্বীপ। এমন কিছু দ্বীপ রয়েছে যেখানে কেবল ৮০ থেকে ৯০টি কক্ষের একটি হোটেল তৈরি করা সম্ভব হয়েছে। নৌ পথ বা পায়ে হেঁটে চলতে হয় এখানে। ইউনেস্কোর প্রথম সারির ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ এই ভেনিস শহর।
সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে উচ্চতা কম হওয়ায় সামান্য জোয়ারে ডুবে যায় শহরের নিচু অঞ্চলগুলো। জোয়ারকে ইতালিয়ান ভাষায় বলে আকুয়া আলতা বা ইংরেজিতে হাই ওয়াটার। প্রতি বছর অক্টোবরের মাঝামাঝি হতে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে এই জোয়ারের পানি আসে। প্রকৃতির এই সুন্দর স্বপ্ন শহর আবার কিছু  প্রাকৃতিক কারণে রয়েছে হুমকির মুখে। গ্রিন হাউজ ইফেক্ট’র জন্য পৃথিবীর যেসব স্থান সমুদ্রগর্ভে বিলিয়ন হবার আশঙ্কা রয়েছে এর মধ্যে ভেনিস অন্যতম। 

গত দুই দিন থেকে ভেনিসে পানির উচ্চতা ১ মিটার ৪০ সেন্টিমিটারের বেশি। গত মঙ্গলবার রাত থেকে স্থানীয় প্রশাসন জোয়ারের কথা প্রচার করে। জোয়ার আসার  ৪ ঘণ্টা পূর্বে সাইরেন বাজিয়ে জানানো হয়। বর্তমানে শহরের সকল এলাকা তলিয়ে গেছে। সৌখিন পর্যটকগণকে পায়ে প্লাস্টিকের জুতা লাগিয়ে ঘুরে ঘুরে আনন্দ করতে দেখা যায়, যা পর্যটকদের জন্য বাড়তি  পাওয়া। স্থানীয় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা প্লাস্টিকের জুতা বিক্রি করতে পেরে বেশ আনন্দিত। প্রতি জোড়া বিক্রি করেন ১০-১২ ইউরো।

LEAVE A REPLY