উখিয়ায় জীববৈচিত্রের ক্ষয়-ক্ষতি নিরুপণে সুপারিশ

মিয়ানমার থেকে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশের কক্সবাজারের বিভিন্ন অঞ্চলে আশ্রয় নিয়ে বসবাস করছে। উখিয়াতে অর্ধেকের বেশি রোহিঙ্গা পাহাড়সহ বিভিন্ন স্থানে বসবাস করায় তারা বনাঞ্চল উজাড় করে ফেলেছে। পাহাড় কেটে, বনাঞ্চল উজাড় করে এবং যেখানে সেখানে বর্জ ফেলে পরিবেশের ক্ষতি করছে। যার ফলে জীববৈচিত্রের ওপর বিরুপ প্রতিক্রিয়া পড়ছে এমন অভিযোগ উঠছে স্থানীয় জনগোষ্ঠি এবং বিভিন্ন মিডিয়ার পক্ষ থেকে।

এছাড়া রোহিঙ্গাদের কারণে বনাঞ্চল উজাড় হওয়ায় হাজারকোটি টাকা ক্ষতি হচ্ছে বলে জাতীয় সংসদের বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটিতে একাধিক বার মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠে আসে। বিষয়টি সরেজমিনে পরিদর্শনে জাতীয় সংসদের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরীর উপস্থিতিতে বৃহষ্পতিবার (১৭ অক্টোবর) উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পরিদর্শন যান। এ সময় তারা বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখেন।

কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার কারণে সেখানকার পরিবেশ, জীববৈচিত্রের যে ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বিশেষজ্ঞ দ্বারা তার পরিমাণ যাচাইয়ের জন্য সুপারিশ করে। পরিদর্শনকালে কমিটির সদস্য রেজাউল করিম বাবলু এমপি, খোদেজা নাসরিন আক্তার হোসেন এমপি ও জাফর আলম এমপি উপস্থিত ছিলেন।

পরিদর্শনকালে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন), পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

source: ভোরের কাগজ

LEAVE A REPLY