‘উদীয়মান চীনকে মোকাবেলায় অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন নতুন মিসাইল’

উদীয়মান চীনকে মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনের সহায়তায় অস্ট্রেলিয়াকে অবশ্যই নিজস্ব ‘সার্বভৌম’ মিসাইল অর্জন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন অস্ট্রেলিয়ার ছায়া প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যান্ড্রু হেস্টি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান রোববার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

অ্যান্ড্রু হেস্টি বলেন, কৌশলগত দৃষ্টিভঙ্গি খুব হতাশাজনক। সংশোধনবাদী ও সম্প্রসারণবাদী উচ্চাকাঙ্ক্ষা– উভয় দিক থেকেই এটা উদীয়মান চীনের দিকেই যাচ্ছে।  এই কারণেই শত্রুকে মোকাবেলায় আমাদের মিসাইল প্রয়োজন। এই ব্যাপারে অস্ট্রেলিয়াকে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে হবে বলেও জানান তিনি। 

তিনি বলেন, নিজস্ব সার্বভৌম মিসাইল তৈরি করতে প্রয়োজন হলে আমাদের অংশীদার দরকার। 

গত বছরই অস্ট্রেলিয়া,যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন অকাস চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। ওই চুক্তির ফলে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরক্ষা বহরে যোগ হচ্ছে পারমাণবিক সাবমেরিন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সাবমেরিন সরবরাহের জন্য সরকারকে ‘নিরলস রাজনৈতিক দৃষ্টি’  রাখার আহ্বান জানিয়েছেন হেস্টি। 

অবশ্য চীন ওই চুক্তিটিকে এই অঞ্চলে জন্য একটি অস্থিতিশীলতার কারণ হিসেবে করেছে। চীনের মতে এর ফলে একটি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরু হবে।

প্রসঙ্গত, মার্কিন হাউস স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর ঘিরে তাইপে-বেইজিংয়ের উত্তেজনার মধ্যেই তার এই মন্তব্য সামনে এলো।

LEAVE A REPLY