আজভ যোদ্ধাদের ভাগ্য পুতিনের হাতে?

ইউক্রেনের মারিউপোলের অবরুদ্ধ আজভস্টাল স্টিল কারখানায় আটকে পড়া প্রায় এক হাজার যোদ্ধা আত্মসমর্পণ করেছে বলে দাবি করেছে রাশিয়া। ওই সেনাদের রুশ নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলেও দাবি করেছে মস্কো। 

তবে ওই  যোদ্ধাদের ভাগ্যে কী ঘটতে যাচ্ছে তা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াশার। ওই যোদ্ধাদের ফিরে পেতে ইউক্রেন বন্দি বিনিময়ের প্রস্তাব দিয়েছে। যদিও ওই যোদ্ধাদের বিচারের মুখোমুখি করা হবে বলে রাশিয়া ইঙ্গিত দিয়েছে। 

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন,ওই সৈন্যদের সঙ্গে ‘প্রাসঙ্গিক আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী’ আচরণ করা হবে। তবে তারা মস্কোর হেফাজতে থাকলে তাদের কী হবে তা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ব্যাচেস্লাভ ভোলোদিন মঙ্গলবার বলেছেন, নাৎসি অপরাধীদের বিনিময় করা উচিত নয়। তাদের বিচার করার জন্য আমাদের সবকিছু করা উচিত।

কোনো প্রমাণ ছাড়াই রাশিয়ার দাবি,  ইউক্রেন একটি নাৎসি কেন্দ্র এবং ইউক্রেনে তার সামরিক অভিযানের অন্যতম মূল লক্ষ্য হল দেশটিকে ‘নাৎসিমুক্ত’ করা।

আর মারিউপোলে অবরুদ্ধ সেনাদের মধ্যে থাকা আজভ রেজিমেন্টের যোদ্ধারা রাশিয়ার মূল টার্গেট। আজভ রেজিমেন্টের এক সময় চরম ডানপন্থীদের সঙ্গেও সংশ্লিষ্টতা ছিল। 

তবে আজভস্টাল যোদ্ধাদের ভাগ্যে কী ঘটবে সে ব্যাপারে শেষ পর্যন্ত রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনই সিদ্ধান্ত নেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সূত্র: বিবিসি

LEAVE A REPLY