আফ্রিদি-হাসান পারলে ইবাদত-রাহি কেন ব্যর্থ?

দুজনকেই বড় ‘প্রতিভাবান’ হিসেবে বিবেচনা করা হয় বাংলাদেশের ক্রিকেটে। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। ৮ উইকেটে হেরে যাওয়া চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের দুই পেসারই ছিলেন চরম ব্যর্থ। উইকেট স্পিন সহায়ক  হলেও মিরপুরের মতো ভয়াবহ নয়। তাই বল হাতে ঝড় তুলে গেছেন পাকিস্তানের দুই পেসার শাহিন আফ্রিদি আর হাসান আলী। বাংলাদেশের দুই পেসারের ব্যর্থতার কারণ হিসেবে মুমিনুল হক দায়ী করেছেন স্কিল আর মানসিকতার ঘাটতিকে।

এই টেস্টে পাকিস্তানের দুই পেসার মিলে নেন ম্যাচে ১৪ উইকেট! এমনকি পেস বোলিং অলরাউন্ডার ফাহিম আশরাফও নেন ২ উইকেট। আর বাংলাদেশের দুই পেসার দুই ইনিংস মিলিয়ে নিয়েছেন মাত্র ২ উইকেট! ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় পুরোপুরি একটা মানসিক ব্যাপার। ওদের (আফ্রিদি-হাসান) স্কিলের সঙ্গে ওরা মানসিকভাবেও শক্ত আছে। স্কিলফুল বোলারদের বিপক্ষে যখন নতুন বলে ব্যাট করবেন, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো মানসিকভাবে আপনি কতটা শক্ত। জানতে হবে কোন জায়গায় কাজ করতে হবে, কোন জায়গায় শক্তিশালী, কোন জায়গায় দুর্বলতা।’

আফ্রিদি এর আগে ১৯ টেস্ট আর হাসান ১৫টি টেস্ট খেলেছেন। অন্যদিকে আবু জায়েদের ১৩তম আর ইবাদতের ৯ম টেস্ট ছিল এটি। অভিজ্ঞতার পার্থক্য খুব একটা নেই। তাহলে তারা ব্যর্থ কেন? মুমিনুল বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয়, ফ্ল্যাট উইকেটে কীভাবে বল করতে হয়, এটা জানাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কোচরা আছেন, উনারা হয়ত ভালো ব্যাখা করতে পারবেন আমার চেয়ে। তবে বিদেশে বল করা একরকম, দেশে আরেকরকম। আমার মনে হয়, বেশি বেশি চার দিনের ম্যাচ খেলা উচিত। পাকিস্তান-ভারতে বড় বড় বোলার যারা আছেন, তারা অনেক ম্যাচ খেলে, অনেক বল করে। আমাদের পেসারদেরও ফ্ল্যাট উইকেটে বল করাটা শিখতে হবে।’

LEAVE A REPLY