যে কারণে সাইফের ওপরই ভরসা রাখছেন ডমিঙ্গো

ওপেনার সাইফ হাসান।

বয়সভিত্তিক ক্রিকেট থেকেই ধীরলয়ের ব্যাটিংয়ে অভ্যস্ত সাইফ হাসান। লংগার ভার্সন ক্রিকেটে যেটি মানানসই। ঘরোয়া ক্রিকেটে পারলেও আন্তর্জাতিকে নিজের সামর্থ্যরে ছাপ রাখতে পারছেন না ডানহাতি এ ওপেনার। তিন টেস্টের ক্যারিয়ারে সাকুল্যে ২৫ রান করেছেন তিনি, সর্বোচ্চ ১৬। ক্যান্ডিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে রান বন্যার প্রথম টেস্টেও ব্যর্থ সাইফ। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে ফেরার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ১ রান করেছেন।

দ্বিতীয় টেস্টের একাদশ থেকে সাইফের বাদ পড়াই অনুমিত ছিল। কিন্তু বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট ২২ বছর বয়সী এ ওপেনারকে আরেকটি সুযোগ দিতে চায়। দ্বিতীয় টেস্টেও ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গী থাকছেন সাইফ। তাকে একাদশে রেখে ওপেনিংয়ে ডানহাতি-বাঁহাতি কম্বিনেশন ধরে রাখতে চায় বাংলাদেশ।

বুধবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই বলেছেন হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। সাইফকে আরও সুযোগ দেয়া হবে কিনা জানতে চাইলে এ প্রোটিয়া কোচ বলেছেন, ‘সাইফের ব্যাপারে বলব, হ্যাঁ আমি চাই তাকে আরো সুযোগ দিতে। টেস্টে ওপেন করা খুব কঠিন। অনেক ওপেনারেরই দলে ঢুকে নিজের জায়গায় মানিয়ে নিতে সময় লাগে। তাই আমি চাই ওকে সুযোগ দিতে। তাছাড়া শুরুতে ডান-বাঁহাতি কম্বিনেশনটা ভালোই হবে। তাই, হ্যাঁ সাইফ খেলবে।’ বাঁহাতি ওপেনার সাদমান ইসলামকে তাই দ্বিতীয় টেস্টেও সাইডবেঞ্চে থাকতে হচ্ছে।

এদিকে দ্বিতীয় টেস্টের জন্য দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি জানিয়েছে, প্রথম টেস্টের জন্য ঘোষিত ১৫ সদস্যের দলটাই অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। তবে বাংলাদেশের একাদশে একটি পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। দল সূত্রে জানা গেছে, পেস আক্রমণে হতে পারে সেই পরিবর্তন। তরুণ বাঁহাতি পেসার শরীফুল ইসলামের অভিষেক হয়ে গেলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামের উইকেটে যেমন ঘাস আছে, তেমনটা ম্যাচের সকাল পর্যন্ত বহাল থাকলে আবু জায়েদ রাহীর জায়গায় শরীফুলকে খেলানোর ইচ্ছা টিম ম্যানেজমেন্টের। তাতে পেস আক্রমণে কিছুটা বৈচিত্র্য আসবে।

ইত্তেফাক/এসআই

LEAVE A REPLY