ভারতে যৌন নির্যাতন সংক্রান্ত আদালতের মন্তব্য নিয়ে উত্তপ্ত বলিউড

শারীরিক স্পর্শ ছাড়া কোনও নাবালিকার বুকে চাপ দেওয়ার ঘটনাকে পকসো আইনের আওতায় যৌন নির্যাতন হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না। একটি মামলায় এমনটিই জানাল বম্বে হাইকোর্টের নাগপুর বেঞ্চ।

১৯ জানুয়ারি একটি রায়ে বিচারপতি পুষ্প গানেদিওয়ালা জানিয়েছেন, ‘যৌন উদ্দেশ্যে ত্বকের সঙ্গে ত্বকের সংস্পর্শ’ হলে তবেই তা যৌন নির্যাতন হিসেবে বিবেচনা করা হবে। নিম্ন আদালতের রায় সংশোধন করে করে এ কথা বলেন তিনি।২ বছরের এক নাবালিকাকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ৩৯ বছরের এক ব্যক্তিকে পকসো আইন এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় আওতায় তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয় নিম্ন আদালত। সঙ্গে ৫০০ টাকা জরিমানা ধার্য করা হয়। অনাদায়ে আর এক মাসের জেলের সাজা দেয় নিম্ন আদালত।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, আদালতের এ মন্তব্য প্রকাশ্যে আসার পরই সমাজের বিভিন্ন স্তরে চলছে প্রতিবাদের ঝড়। চুপ করে নেই বলিউডের সেলিব্রিটিরাও।

তাপসী পান্নু খবরটি টুইট করে লিখেছেন, ‘‘অনেকক্ষণ ধরেই ভাবছি। তবে এই খবরটা পড়ে যা মনে হচ্ছে, তা প্রকাশের শব্দ এখনও খুঁজে পাইনি।’’

তারপরেই ‘ন্যাশনাল গার্লস ডে’র শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছেন তাপসী। বলা হচ্ছে, এই রায় সমাজের প্রতিটি নাবালিকার গালে যেভাবে থাপ্পড় মেরেছে, তার প্রতি ধিক্কার জানিয়ে তাপসীর পরের টুইটটি।

রিতেশ দেশমুখ খবরটি টুইট করে লিখেছেন, ‘‘এটা কি ভুয়া খবর?’’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরেছেন পরিচালক ওনির, অভিনেত্রী শিবানী দান্ডেকর প্রমুখ।

এই রায় সব ক্ষেত্রে প্রযোজ্য কি-না তা নিয়ে আইনি লড়াই এখন চলবে। তবে এই রায়ের আপাত অসংবেদনশীলতাই ভাবিয়ে তুলছে সাধারণ মানুষ থেকে সেলেব্রিটিদের।

বিডি প্রতিদিন

LEAVE A REPLY