২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানার মুখোমুখি টুইটার

বিজ্ঞাপন বাণিজ্যের অভিযোগে টুইটারকে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা করতে পারে মার্কিন প্রশাসন। সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, ব্যবহারকারীদের ফোন নাম্বার এবং ই-মেইলের তথ্যের উপরে ভিত্তি করে বিজ্ঞাপন বাণিজ্যে করে প্রতিষ্ঠানটি।

এই অভিযোগে গত ২৮ জুলাই ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহারের জন্য টুইটারকে দায়ী করে এক অভিযোগপত্র দিয়েছে ফেডারেল ট্রেড কমিশন। শুধু এই অভিযোগ পত্রের জন্যই ১৫০ থেকে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা গুনতে হতে পারে টুইটারকে।এদিকে, টুইটার কর্তৃপক্ষ বলছে, ‘অসাবধানতাবশত’ ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টের সুরক্ষায় ব্যবহৃত ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়েছে। মূলত এই তথ্যগুলো নেওয়া হয়েছিল ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট আরও সুরক্ষিত করতে। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ২০১৩ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বিজ্ঞাপনগুলোর কোটা পূরণের লক্ষ্যে এই পথ বেছে নেওয়া হয়েছিল।

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) ফেডারেল ট্রেড কমিশনের পক্ষ থেকে জানান হয়, টুইটার এই বিষয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। অবশ্য এর আগে ব্যবহারকারীদের তথ্য বেহাতের অভিযোগে রেকর্ড ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা দিয়ে ফেসবুকের সঙ্গে সমঝোতায় এসেছিল টুইটার।

প্রসঙ্গত, টুইটারের নিকট ২০২০ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ৬৮৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করার কয়েকদিনের মধ্যেই এই অভিযোগপত্র আসে। যা বারাক ওবামা, জো বাইডেন, বিল গেটস ও জেফ বেজোসসহ আরও খ্যাতিমান ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট হ্যাকের ২ সপ্তাহের মধ্যে ঘটেছে।

LEAVE A REPLY