রুশ বিমানের জরুরি অবতরণ

ছবি: সংগৃহীত

২৩৩ আরোহী নিয়ে জরুরি অবতরণ করেছে রাশিয়ার একটি বিমান। বৃহস্পতিবার উড্ডয়নের কিছু সময় পরেই বিমানটি জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হয়। তবে এতে কারো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে বিমানের যাত্রীদের বেঁচে যাওয়ার এই ঘটনাকে ‘অলৌকিক’ ঘটনা বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউরাল এয়ারলাইরন্সের এয়ারবাস ৩২১ বিমানটি ক্রিমিয়ার সিম্ফারোপোল যাচ্ছিল। উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরেই এক ঝাঁক পাখির সঙ্গে ধাক্কা লেগে বিমানটির ইঞ্জিনে ত্রুটি দেখা দেওয়ায় এটি জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এক ঝাঁক পাখির সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ার পর বিমানের ইঞ্জিনে ত্রুটি দেখা দেয়। বড় ধরনের বিপদ এড়াতে বিমানটি মস্কোর দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় একটি শস্যক্ষেতে জরুরি অবতরণ করে। এতে ২৩ জন আহত হলেও কেউ নিহত হয়নি।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, ঝুকোভস্কি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে এক কিলোমিটারের বেশি দূরে বিমানটি জরুরি অবতরণ করে। ইন্টারফেক্স নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছে।

কমসোমলস্কায়া প্রাভডা নামের একটি ট্যাবলয়েড পত্রিকায় বিমানের পাইলট দামির ইউসুপোভকে একজন ‘হিরো’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তিনি ২৩৩ জন আরোহীর জীবন বাঁচিয়েছেন। ত্রুটিপূর্ণ ইঞ্জিন নিয়েও তিনি একটি ভুট্টা ক্ষেতে সাহসিকতার সঙ্গে সফলভাবেই বিমানের অবতরণ করেছেন।

ওই বিমানের এক আরোহী জানিয়েছেন, বিমানটি উড্ডয়নের পরই কাঁপতে শুরু করে। ৫ সেকেন্ড পর বিমানের ডানদিকে লাইট জ্বলে উঠতে শুরু করে আর পোড়া গন্ধও আসছিল। এরপরই বিমানটি জরুরি অবতরণ করে। বিমানের সব আরোহীকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আহতদেরকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জনই শিশু।

source: ভোরের কাগজ

LEAVE A REPLY