ঊর্মিলার জাদু ম্লান

বলিউড অভিনেত্রী ঊর্মিলা মাতন্ডকরের জাদু রাজনীতির ময়দানে কাজ করল না। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে উত্তর মুম্বাই কেন্দ্রে কংগ্রেসের হয়ে দাঁড়িয়েছেন ঊর্মিলা। তাঁর বিরুদ্ধে প্রার্থী বিজেপির গোপাল শেঠি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত গোপালের রাজনৈতিক কারিশমার কাছে ঊর্মিলার জাদু ম্লান।

মহারাষ্ট্রজুড়ে এখন বিজেপির জয়জয়কার। মহারাষ্ট্রে ৪৮টি আসনের মধ্যে বিজেপি ২২টি এবং শিবসেনা ২০টি আসনে এগিয়ে। কংগ্রেস মাত্র একটি আসনে আর রাষ্ট্রবাদী কংগ্রেস ৪ আসনে এগিয়ে।

মুম্বাইয়ের সব আসনে এখন পর্যন্ত বিজেপির দাপট। উত্তর-মধ্য মুম্বাই কেন্দ্রে বিজেপির পুনম মহাজন কংগ্রেসের প্রিয়া দত্তের থেকে এগিয়ে রয়েছেন। দক্ষিণ মুম্বাইয়ে কংগ্রেসের হেভিওয়েট প্রার্থী মিলিন্দ দেওড়া শিবসেনার সাংসদ অরবিন্দ সাওয়ান্তের থেকে পিছিয়ে আছেন।

বারামতি কেন্দ্রে শারদ পাওয়ারের এনসিপির দাপট বেশি থাকে। শারদকন্যা সুপ্রিয়া শূলে প্রায় ৩০ হাজার ভোটে এগিয়ে আছেন। পিসি এগিয়ে থাকলেও নির্বাচনের ময়দান থেকে ছিটকে গেছেন ভাইপো। সুপ্রিয়ার তুতো ভাই অজিত পাওয়ারের ছেলে পার্থ পাওয়ার মাবাল লোকসভা কেন্দ্রে এনসিপির প্রার্থী ছিলেন। পার্থ ১ লাখ ৫০ হাজার ভোটে পিছিয়ে আছেন। বিজেপির তিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নাগপুরের নীতিন গড়করি, ধুলের সুভাষ ভামরে এবং চন্দ্রপুরের হংসরাজ আহির এগিয়ে আছেন। কংগ্রেসের হেভিওয়েট প্রার্থী তথা মহারাষ্ট্রের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অশোক চৌহান এখন পর্যন্ত পিছিয়ে আছেন। নাসিকে এনসিপির প্রভাবশালী নেতা ছগন ভুজওয়ালের ভাইপো সমীর ভুজওয়াল পিছিয়ে আছেন।

অনেকে ভেবেছিলেন, মহারাষ্ট্রে এমএনএসের প্রধান রাজ ঠাকরের জাদু কিছুটা হলেও কাজ করবে। রাজ মহারাষ্ট্রে প্রচুর র‍্যালি করেছিলেন। কিন্তু গতবারের মতো এবারও বিজেপি-শিবসেনার দাপট অব্যাহত।

LEAVE A REPLY