‘থ্রিলার’ লিখে ওয়ানডেতে জয়ের ‘হিসাব’ খুলল নেপাল

ওয়ানডেতে প্রথম জয়ের পর নেপালের ক্রিকেটারেরা। ছবি: টুইটার

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১ রানের রোমাঞ্চকর জয় তুলে নিয়েছে নেপাল। আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে এটাই প্রথম জয় নেপালের

অভিষেক ওয়ানডেতেই জয়ের নজির গড়া পাঁচটি দলের কাতারে নাম লেখাতে পারত নেপাল। গত বুধবার নেদারল্যান্ডসের কাছে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে হেরে সেই সুযোগ হাতছাড়া করে দেশটি। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে আর সুযোগ নষ্ট করেনি পরশ খাড়কার দল। স্নায়ুক্ষয়ী এ ম্যাচের ময়দানি লড়াইয়ে রীতিমতো ‘থ্রিলার’ লিখেই নিজেদের ওয়ানডে ইতিহাসে প্রথম জয় তুলে নিয়েছে হিমালয়ের কোলঘেঁষা দেশটি।

আমস্টেলভিনে আন্তর্জাতিক অভিষেকে লড়াই করেও স্বাগতিকদের কাছে ৫৫ রানে হারতে হয়েছিল পরশ খাড়কার দলকে। কাল একই মাঠে তাঁরা জিতেছে মাত্র ১ রানের ব্যবধানে! আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪৮.৫ ওভারে ২১৬ রানে অলআউট হয়েছিল নেপাল। তাড়া করতে নেমে শেষ ওভারে জয়ের জন্য ৬ রান দরকার ছিল ডাচদের। প্রথম চার বল থেকে ৪ রান নিতে পারলেও খাড়কার শেষ দুটি ডেলিভারি থেকে কোনো রানই নিতে পারেনি স্বাগতিকেরা।

উল্টো শেষ ডেলিভারিতে ক্লাসেনকে রানআউট করে নেপালকে ঐতিহাসিক জয় এনে দেন খাড়কা। তাঁদের ওয়ানডে ইতিহাসে এটাই যে প্রথম জয়, সেটাও আবার দ্বিতীয় ম্যাচেই। তার আগে ব্যাট হাতেও ৫১ রানের ইনিংস খেলেছেন খাড়কা। কিন্তু শেষ দিকে ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে ৬১ রান করা সোমপাল কামিই ম্যাচসেরা। আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে নেপালের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ম্যাচসেরার পুরস্কার পেলেন তিনি। এই দুটি ইনিংসে ভর করেই মূলত লড়াই করার সংগ্রহ পেয়ে যায় নেপাল।

তাড়া করতে নেমে ডাচরা এই ম্যাচ শেষ ওভার পর্যন্ত টানতে পেরেছে ওয়েসলি বারেসির ৭১ রানের ইনিংসটির জন্য। তাঁর এই ইনিংসেই ভিতটা গড়েছে স্বাগতিকেরা। যদিও আইপিএলে আলোচিত নেপালের লেগ স্পিনার সন্দ্বীপ লামিচাঁনে বেশ ভালোই ভুগিয়েছেন ডাচদের। ৪১ রানে ৩ উইকেট নেন তিনি। শেষ ওভারে খাড়কার দৃঢ়তায় ডাচদের ২১৫ রানে অলআউট করতে পেরেছে এশিয়া থেকে ক্রিকেট মানচিত্রে উঠে দেশটি। এতে অভিষেক ওয়ানডে সিরিজটাও হারতে হয়নি নেপালকে। দুই ম্যাচের এই সিরিজ ১-১ ব্যবধানে সমতায় থেকে শেষ করল খাড়কার দল।

 

LEAVE A REPLY